ব্রেকিং নিউজ
Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়ায় সওজ’র উচ্ছেদ কার্যক্রম স্থগিত রাখতে সংসদ সদস্যের প্রতিশ্র“তি

লোহাগাড়ায় সওজ’র উচ্ছেদ কার্যক্রম স্থগিত রাখতে সংসদ সদস্যের প্রতিশ্র“তি

01

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়া সদর এলাকায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের দু’পাশে সওজ’র জায়গায় স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম স্থগিত রাখতে প্রতিশ্র“তি দিয়েছেন সংসদ সদস্য অধ্যাপক ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী। ২৯ নভেম্বর রবিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সামনে এ প্রতিশ্র“তি দেন তিনি। লোহাগাড়া উপজেলা বটতলী মোটর ষ্টেশনের ব্যবসায়ীরা সওজ’র উচ্ছেদ কার্যক্রম স্থগিতের আবেদন জানিয়ে এমপি বরাবরে লিখিত দরখাস্ত করেন। ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখার সময় তিনি দৃঢ়ভাবে বলেন, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সম্প্রসারণ কাজ যখন হবে তখনই লোহাগাড়া এলাকার সওজ’র জায়গা থেকে স্থাপনাগুলো তুলে দেয়া হবে। এ ব্যাপারে তিনি স্থানীয় ব্যবসায়ীদের আশ্বাস্ত করেন।

উল্লেখ্য যে, গত ২৬ নভেম্বর লোহাগাড়া সদরে বিনা নোটিশে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেন। এ সময় অস্থায়ী বেশকিছু স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। উচ্ছেদ অভিযানের সময় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিলে লোহাগাড়া সদর ইউপি চেয়ারম্যান নুরুচ্ছফা চৌধুরী আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে মধ্যস্থতা করেন। পরে উচ্ছেদ অভিযানে থাকা কর্তৃপক্ষ ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান স্থগিত রাখেন। উচ্ছেদ অভিযানে ছিলেন লোহাগাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাবিবুল হাসানসহ অন্যান্যরা। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি)’র জানতে চাইলে তিনি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের রাজস্ব অফিসের একটি আদেশ কপি দেখান। উক্ত কপিতে ৯টি দাগের উপর স্থাপনা উচ্ছেদের আদেশ রয়েছে। কিন্তু কোন দাগে কি পরিমাণ অংশ উচ্ছেদ হবে এ ধরণের কোন চিহ্নিত নেই। সংসদ সদস্য বরাবরে ব্যবসায়ীদের দরখাস্তে এসব উল্লেখ করা হয়েছে। দরখাস্ত মতে ১৯৫৪-৫৫ সনের ১৬নং এলএ মামলার আলোকে আরএস দাগের উপর হুকুম দখল করা হয়েছিল। কিন্তু জেলা প্রশাসনের রাজস্ব অফিসের কপিতে দেখা যায় সম্পূর্ণ বিএস দাগের উপর উচ্ছেদের আদেশ রয়েছে। ব্যবসায়ীরা জানান, এসব দাগে ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গাও রয়েছে অনেক।

তবে ব্যবসায়ীরা প্রতিশ্র“তি দিয়ে জানান, মহাসড়ক সম্প্রসারণের জন্য সরকার যখনই চাইবেন নিজ নিজ স্থাপনাগুলো নিজেদের উদ্যোগেই ছেড়ে দেবেন। এছাড়াও বর্তমান পরিস্থিতিতে সওজ’র বিভাগের জায়গা পরিমাপ করে সীমানা নির্ধারণ করাও আবশ্যক বলে মনে ব্যবসায়ীরা। অন্যথায় ব্যবসায়ীদের অপূরণীয় ক্ষতি হবে বলে মনে করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*