ব্রেকিং নিউজ
Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়ায় মোটরসাইকেল-ট্রাক সংঘর্ষে ৪ বন্ধু হতাহত

লোহাগাড়ায় মোটরসাইকেল-ট্রাক সংঘর্ষে ৪ বন্ধু হতাহত

135

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ার লোহারদিঘীর পাড়ে আরকান সড়কে ১৬ অক্টোবর বিকেল ৪টায় কক্সবাজার অভিমুখী একটি মিনিট্রাকের সাথে বিপরীতমুখী একটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে ২ জন ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে নেয়ার পথে আরো ১ জন নিহত হন। এছাড়া অপর একজন আহত ব্যক্তিকে আশংকাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী, হাইওয়ে পুলিশ ও স্বজনরা জানিয়েছেন, নিহতরা হলেন যথাক্রমে আমিরাবাদ হাছির পাড়ার আবদুল আবদুল মালেকের পুত্র মোঃ তানজিব (১৬), হাছি মিয়ার পুত্র শাকিল (১৭) ও মোহাম্মদ সওদাগরের পুত্র শোয়াইব (১৪) প্রমুখ। আহত হলেন একই ইউনিয়নের রাজঘাটা এলাকার আমিরখান চৌধুরী পাড়ার নুরুল ইসলামের পুত্র আকতার হোসেন (১৯)।

দোহাজারী হাইওয়ে পুলিশ পরিদর্শক একেএম কাউছার চৌধুরী জানিয়েছেন, ৪ জন মোটরসাইকেলরোহী চুনতি এলাকা থেকে লোহাগাড়া বটতলী মোটর ষ্টেশনে আসছিলেন। ঘটনাস্থলে মিনিট্রাকটি চুনতি অভিমুখে যাচ্ছিল। ঘটনাস্থলে একটি মাইক্রোবাস বিকল অবস্থায় দাড়িয়ে ছিল। মোটরসাইকেলরোহীরা সেটি ওভারটেক করতে গিয়ে এ দূর্ঘটনায় পতিত হয়। ফলে ঘটনাস্থলে যথাক্রমে তানজিব ও শাকিল নিহত হন। আশংকাজনক অবস্থায় শোয়াইব ও আকতার হোসেনকে স্থানীয় একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে তাদের অবস্থার অবনতি হয় বলে কর্তব্যরত ট্রমা বিশেষজ্ঞ ডাঃ মাহমুদুর রহমান জানান। ফলে তাদেরকে চট্টগ্রাম পাটিয়ে দেয়া হয়। চন্দনাইশ এলাকায় শোয়াইবের মৃত্যু ঘটে বলে তার ভগ্নিপতি আলম সওদাগর নিশ্চিত করেন।

এ ব্যাপারে হাইওয়ে পুলিশ কর্মকর্তা একেএম কাউছার চৌধুরী জানিয়েছেন, এ সংক্রান্ত কোন মামলা হয়নি। লাশ স্বজনদের হস্তান্তর করা হয়েছে। খোজখবর করে জানা যায়, গতকাল হাছি মিয়ার কন্যার বিয়ের দিন ধার্য্য ছিল। স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। তানজিব ও অপর তিনজন বন্ধু মিলে আনন্দ ভ্রমণ করার জন্য আরকান সড়ক অতিক্রম করছিল। তাদের মৃত্যু সংবাদ এলাকায় পৌঁছলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। নিহতরা সবাই একই পরিবারের সদস্য।

স্থানীয় কবরস্থানের পাশাপাশি তিনজনের কবর দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এলাকাবাসীরা এ মর্মান্তিক দৃশ্য কখনো দেখেননি। বিয়ের অনুষ্ঠান এ ঘটনার পর পরই শোকের চাদরে ঢেকে যায়। নবপরিণিতা বোন ও স্বজনদের আত্মনাতে সবাই বলছেন এ ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে। ভাঙ্গাচুরা রাস্তা ও যত্রতত্র বিকল গাড়ি দাড়ানোর ফলশ্র“তিতে এ ঘটনা ঘটেছে বলে অনেকে অভিমত রেখেছেন। তারা চলছেন উঠতি বয়সী ছেলেদের বেপরোয়া গাড়ি চালানোই প্রতিদিন এমন দুঃখজনক ঘটনা ঘটে চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*