ব্রেকিং নিউজ
Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়ায় টানা বর্ষণে ব্যাপক ক্ষতি

লোহাগাড়ায় টানা বর্ষণে ব্যাপক ক্ষতি

12

মোঃ জামাল উদ্দিন : তিন দিনের টানা বর্ষণে লোহাগাড়ায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। গত ২৫ জুন বৃহস্পতিবার সকালে চুনতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জনু জানিয়েছেন, ২৪ জুন রাতে ইউনিয়নের কাঠালিয়া পাড়া, লালা ফকিরনী হাট ও হিন্দু পাড়ায় হাতিয়া খালে ব্যাপক ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়েছে। লালা ফকিরনী হাটে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ভাঙ্গন প্রতিরোধ বেড়ি বাঁধ নির্মাণের তিন দিনের মাথায় ভাঙ্গন সৃষ্টি হওয়ায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে বলে চেয়ারম্যান জানিয়েছেন। এ ভাঙ্গনের ফলে চুনতি বিল, নাথপাড়া বিল, সেবারবিল ও হাজি রাস্তা সংলগ্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে, চুনতি মৌলভী বাজার সংলগ্ন সাতগড় পূর্ব পাড়ায় জলাবদ্ধতায় কয়েকটি বাড়িতে পানি উঠে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে প্রকাশ। পানি চলাচলের নালায় প্রতিবন্ধক দেয়াল সৃষ্টি করে স্থাপনা নির্মাণের ফলে এ ঘটনা ঘটেছে বলে চেয়ারম্যান জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্থরা প্রতিবন্ধক দেয়ালটি অপসারণের জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

আধুনগরের ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম জানিয়েছেন, আধুনগর হাতিয়াপুল এলাকায় হাতিয়ার খালে ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে খালটি সংস্কার না হওয়ায় ও প্রভাবশালী কর্তৃক দু’তীরে জায়গা দখল করার ফলে পানি প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। ফলে গত ২৪ জুন রাতে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়। এ ভাঙ্গনে ছাইয়ার পাড়া, সেবারবিল ও সংলগ্ন বড়হাতিয়া দানেশের পাড়া, মাঝের পাড়া ও ইয়াছিনের পাড়া জলমগ্ন হয়ে যায়।

এছাড়া নারিশ্চা, বড়হাতিয়া, ভবানীপুর, হরিণা ও লোহাগাড়া সদর সংলগ্ন রাস্তায় ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়েছে এবং রাস্তার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে যোগাযোগ ব্যাপক দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন এলাকাবাসী।

কুলপাগলি এলাকা থেকে নুরুল কবির জানিয়েছেন, প্রবল বর্ষণে এলাকার কয়েকটি মৎস্য প্রজেক্ট ভেসে গেছে।

জঙ্গল পদুয়া থেকে ডাঃ সেলিম জানিয়েছেন, হাঙ্গর খালের স্রোতের তোড়ে জঙ্গল পদুয়ার গ্রীষ্মকালীন শাকসব্জির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। কৃষকের ফলানো বেগুন, শষা, কাকরল ও অন্যান্য ক্ষেতে পলির আস্তরণ পড়েছে।

টংকাবতী খালে স্রোতের ফলে কলাউজান, আমিরাবাদ ও অন্যান্য এলাকার সব্জি ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়। লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসে চেয়ারম্যান- মেম্বাররা ক্ষয়ক্ষতির বিবরণ জমা না দেয়ায় উপজেলায় কি পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তার বিবরণ জানাতে পারেননি। টানা বর্ষণের কারণে খেটে খাওয়া মানুষেরা দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন। দ্রব্যমূল্য স্বাভাবিক রয়েছে। কোথাও কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। আকাশ মেঘলা রয়েছে। এ পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে লোহাগাড়ায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরো বৃদ্ধির আশংকা প্রকাশ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*