ব্রেকিং নিউজ
Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়ায় এমপি নদভীর সারাদিনের কর্মসূচী

লোহাগাড়ায় এমপি নদভীর সারাদিনের কর্মসূচী

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ায় গত ১১ মে চট্টগ্রাম- ১৫ আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করেছেন। সারাদিনের কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মসজিদে নিবরাস উদ্বোধন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মতবিনিময় সভা, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা, কলাউজানের বলি পাড়া, শীল পাড়া ও জয়নগরে বিদ্যুৎ সংযোগ উদ্বোধন, লোহাগাড়া টু চট্টগ্রাম বিআরটিসি বাস সার্ভিস উদ্বোধন ও উপজেলা সদরের আমিরাবাদ জলদাস পাড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ উদ্বোধন।

01

লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মসজিদে নিবরাস উদ্বোধন :
লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানে ও শারজাহ চ্যারিটি হাউস সংযুক্ত আরব আমিরাতের অর্থায়নে মসজিদে নিবরাস নির্মাণ সমাপ্ত হয়েছে। সংস্থার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী এমপি আনুষ্ঠানিকভাবে মসজিদের দ্বার উদ্বোধন করেন। প্রথমে মসজিদের নাম ফলক উদ্বোধন ও পরে ফিতা কেটে মসজিদে প্রবেশ করেন। পরে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত করা হয়। তিনি পরে মসজিদের নির্মাণ ও অজুখানা ঘুরে দেখেন। এ সময় তার সাথে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ শরফরাজ খান চৌধুরী, লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ফিজনূর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাবেক কর্মকর্তা ডাঃ হাসান শাহরিয়ার, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (ভার) ডাঃ মোঃ হানিফ, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান, দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক নুরুল আবছার চৌধুরী, লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সালাহ উদ্দিন হিরু, ট্রমা সেন্টারের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা ট্রমা বিশেষজ্ঞ ও অর্থোপেডিক সার্জন ডাঃ মাহমুদুর রহমানসহ কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা-কর্মচারী, লোহাগাড়া কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মিছবাহ উদ্দিন রাজিব, সাংবাদিক ও সুধীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

02

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মতবিনিময় সভা :
মানুষের মৌলিক অধিকার সু-স্বাস্থ্য যাতে অটুট থাকে তার জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত আন্তরিক। তারই প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে সমগ্র দেশে কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে গ্রামীণ জনপদে কর্তব্যরত ডাক্তার-নার্সরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সেখানে শুধু সেবা নয়, বিনামূল্যে রোগীরা ঔষুধপত্র পেয়ে থাকেন। বিএনপি সরকার কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দিয়ে অমানবিক আচরণ করেছিল। জননেত্রী শেখ হাসিনা তা চালু করে মানবতার অনন্য স্বাক্ষী হয়ে রইলেন। বিভিন্ন হাসপাতালে নতুনভাবে ডাক্তার-নার্স নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তরুণ ডাক্তাররা এখন রোগীর অন্যতম ভরসাস্থল। লোহাগাড়া হাসপাতালে আগে বিদ্যুতের অভাবে রোগী কষ্ট পেত। সম্প্রতি সোলার সিষ্টেমের মাধ্যমে তা লাঘব হয়েছে। তদোপরি অতি সম্প্রতি সরকার এ হাসপাতালে ১০ মেগাওয়ার্ড শক্তি সম্পন্ন একটি জেনারেটর বরাদ্দ দিয়েছেন। এখন রোগীরা নিরিবিচিছন্ন বিদ্যুতের ফলে কোন কষ্টের সম্মুখীন হবে না। আগে লোহাগাড়া হাসপাতালে প্রবেশের সংযোগ সড়কটির অবস্থা অত্যন্ত নাজুক ছিল। রিক্সারোহীরা অনেক সময় পড়ে গিয়ে আহত হতেন। প্রশব বেদনায় কাতর অনেক মহিলা ঝাকুনিতে অবর্ণনীয় দূর্ভোগ পোহাতেন। রাস্তাটি বর্তমানে সুগম হওয়ায় এ সমস্যা সমাধান হয়েছে। পানিয় জলের সমস্যা নিরসনের জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে। লোহাগাড়া ট্রমা সেন্টার চত্বরে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী এ কথা বলেছেন। তিনি আরো জানান, লোহাগাড়া উন্নয়নে ব্যক্তিগতভাবে আগামী ১৭ মে স্থানীয় সরকারের চট্টগ্রাম অফিসে নির্বাহী প্রকৌশলীকে সাথে নিয়ে যেসব রাস্তার অবস্থা নাজুক তা তিনি প্রত্যক্ষ করে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেবেন। লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ হানিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডাঃ শরফরাজ খান চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যথাক্রমে লোহাগাড়া ইউএনও মোহাম্মদ ফিজনূর রহমান, ডাঃ হাছান শাহরিয়ার কবির, লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান, আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল আবছার চৌধুরী, খোরশেদ আলম চৌধুরী, নুরুচ্ছফা চৌধুরী ও মোঃ সালাহ উদ্দিন হিরু। ট্রমা সেন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অর্থোপেডিক সার্জন ডাঃ মাহমুদুর রহমানসহ কমপ্লেক্সে কর্মরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী, নার্স, কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্তব্যরত ডাক্তার ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। ডাঃ জাফরিন চৌধুরী ও আতাউল করিম আরবী যৌথভাবে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন।

03

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা :
লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা দুপুরে ট্রমা সেন্টার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় লোহাগাড়া-সাতকানিয়া আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অন্যান্যদের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ শরফরাজ খান চৌধুরী, ব্যবস্থাপনা কমিটির সকল সদস্যবৃন্দ, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ হানিফ, সাবেক কর্মকর্তাদ্বয় যথাক্রমে ডাঃ হাছান শাহরিয়া কবির ও ডাঃ আবদুল কাইয়ুম উপস্থিত ছিলেন। সভায় স্বাস্থ্য সেবাকে জনগণের দরজায় পৌঁছে দেয়ার জন্য উপস্থিত সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়। গরীব রোগীদের সেবা নিশ্চিত করতে বিনামূল্যে ঔষুধ সরবরাহ ও আর্থিক সাহায্য দেয়ার উপরে সিভিল সার্জন তার বক্তব্যে সমাজের দানশীল ব্যক্তিদের এগিয়ে আসা উচিত বলে মন্তব্য করেন। তার বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়ে তাৎক্ষণিকভাবে এমপি নদভী কল্যাণ সমিতির আজীবন সদস্যপদ লাভের আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং তাকে সদস্যপদ প্রদান করা হয়। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক নুরুল আবছার চৌধুরী সভায় জানান যে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি লোহাগাড়ার উত্তর প্রান্তে অবস্থিত বলে বৃহৎ জনগোষ্ঠি তাৎক্ষণিকভাবে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণ করতে পারেন না। সন্নিহিত সাতকানিয়া উপজেলা ও লোহাগাড়ার পদুয়ার জনগণের কল্যাণে মূলতঃ হাসপাতালের কার্যক্রম বেগবান হয়। তিনি লোহাগাড়া সদরে একটি ১০ বেডের হাসপাতাল স্থাপনের প্রস্তাব রাখেন। পরে সর্বসম্মতভাবে অনতিবিলম্বে একটি ১০ বেডের হাসপাতাল স্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সমাজসেবক আরমান বাবু প্রস্তাব অনুসারে আরকান সড়কে হাসপাতাল সংযোগস্থলের প্রবেশমুখে একটি তোরন নির্মাণের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে অতিথি হিসেবে লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান, সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জসহ লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে বক্তারা বিগত দিনে লোহাগাড়া হাসপাতালের সার্বিক উন্নতির জন্য সাবেক কর্মকর্তা ডাঃ আবদুল কাইয়ুম ও হাছান শাহরিয়া কবিরের ভূমিকার প্রশংসা করেন। তারা বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ট্রমা সেন্টার উদ্বোধনের পর লোকবল ও যান্ত্রিক যেসব সমস্যা ছিল তা অনতিবিলম্বে পূরণ হবে বলে জানান। এমপি নদভী হাসপাতালের উন্নয়নে যে কোন সময় সাহায্য-সহযোগিতার হাত বাড়ানোর প্রতিশ্র“তি দিয়েছেন।

04

কলাউজানের বলি পাড়া, শীল পাড়া, জয়নগর ও উপজেলা সদরের আমিরাবাদ জলদাশ পাড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ উদ্বোধন :
দেশের অর্থনীতিতে পল্লীর জনসাধারণের ভূমিকা অপরিসীম। গ্রামীণ জনপদ আজ উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে। কৃষকের উৎপাদিত ফসল যথাসময়ে উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে বাজারজাত করা যায়। গ্রামীণ জনপদের অসংখ্য মানুষ বৈদেশিক মুদ্রা আয় করে এদেশকে সমৃদ্ধশালী করছেন। তাদের কল্যাণে সুগম যোগাযোগ ব্যবস্থা ও নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ অপরিহার্য। নিকট অতীতেও যেখানে গ্রামীণ জনপদে বিদ্যুতের কথা কল্পনা করা যেত না বর্তমান সরকার তা অনেকাংশে লাঘব করেছেন। কারণ গ্রামীণ মানুষের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাসস্থান ও অর্থনৈতিক বুনিয়াদ মজবুত করতে বিদ্যুতের গুরুত্ব অসীম। গ্রামীণ জনপদে প্রতিটি ঘরে বিদ্যুতের আলো পৌছানো বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার লালিত স্বপ্ন। তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর। বিকেলে চট্টগ্রাম বিদ্যুৎ সমিতি লোহাগাড়া অফিসের উদ্যোগে কলাউজানের বলি পাড়া ও সংলগ্ন জনপদে ৫শ ৩৪ গ্রাহকের মিটারে সংযোগ স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে লোহাগাড়া-সাতকানিয়া আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী এ কথা বলেছেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আওয়ামীলীগ নেতা আবদুল জব্বারের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ফিজনূর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান এ ওয়াহেদ, মুজিবুল হক দুলু প্রমুখ। বীর মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আমিন চৌধুরী, লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান, নারী নেত্রী জেসমিন আক্তার, সাংবাদিক আবদুল জব্বার ফিরোজীসহ এলাকার অসংখ্য নর-নারী সভায় উপস্থিত ছিলেন। পরে স্থানীয় অধিবাসীদের দুঃখ-দুর্দশা ও দাবীর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে এমপি নদভী কলাউজান বাংলাবাজার- বলিপাড়া সড়ক, হরিণাসড়ক ও স্থানীয় মাদ্রাসার উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
এছাড়া সন্ধ্যায় অনুরূপ এক অনুষ্ঠানে লোহাগাড়া বটতলী মোটর ষ্টেশন সংলগ্ন জলদাশ পাড়ায় ৪২ পরিবারে আনুষ্ঠানেকভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়। লোহাগাড়া এক দিনে মোট ৫শ ৭৬ গ্রাহকের মাঝে এ সংযোগ দেয়া হল। যার লাইনের পরিমাণ সাড়ে ৯ কিলোমিটারের অধিক বলে জানা গেছে।

05

লোহাগাড়া টু চট্টগ্রাম বিআরটিসি বাস সার্ভিস উদ্বোধন :
দেশের উন্নয়নে যোগাযোগ ব্যবস্থার ভূমিকা অপরিসীম। আগে মানুষ কল্পনাই করতে পারত না স্বল্প সময়ে গ্রাম থেকে শহরে যাওয়া এতো সহজ হবে। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে বড় বড় ফ্লাইওভার নির্মাণ করে সরকার যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তা না দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন। জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সফল সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবাইদুল কাদের দিন-রাত পরিশ্রম করে চলেছেন। যাতে মানুষের চলাচলের দূর্ভোগ লাঘব হয়। লোহাগাড়া বটতলী ষ্টেশন হতে অতি কষ্টে লোকজন শহরে যাতায়াত করেন। পয়সার অভাবে অনেকে দামী গাড়িতে চড়তে পারেন না। মানুষের দুর্দশার কথা চিন্তা করে চট্টগ্রাম শহর থেকে লোহাগাড়া বটতলী মোটর ষ্টেশন পর্যন্ত বিআরটিসি দু’তলা বাস সার্ভিস সম্প্রসারণ করা হয়েছে। আগামী দিনে এ সার্ভিস আরো আধুনিক ও সুগম করা হবে। সন্ধ্যায় লোহাগাড়ায় বিআরটিসি দু’তলা বাস সার্ভিস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে লোহাগাড়া-সাতকানিয়া আসনের সদস্য সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী এ কথা বলেছেন। তিনি লোহাগাড়ার উন্নয়নে সরকার অন্যান্য আরো যেসব প্রকল্প হাতে নিয়েছেন তার মধ্যে একটি কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ নির্মাণ, খেলাধুলার উন্নয়নে ষ্টেডিয়াম নির্মাণ, ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন নির্মাণ, যাতায়তে বিঘœসৃষ্টিকারী বিধ্বস্থ রাস্তা মেরামত ও পুনঃনির্মাণ করা হবে বলে উল্লেখ করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ফিজনূর রহমান। বক্তব্য রাখেন থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান, আওয়ামীলীগ নেতা ওমর ফারুক, দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক নুরুল আবছার চৌধুরী, লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী, সহ-সভাপতি নিবাস দাশ সাগর, নুরুচ্ছফা চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা এম এ গণি সম্রাট, এস এম আবদুল জব্বার, শ্রমিকলীগ নেতা ফরিদ উদ্দিন, যুবলীগ নেতা আবছার চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা রিদওয়ানুল হক সুজন প্রমুখ। উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ সালাহ উদ্দিন হিরু অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। তিনি লোহাগাড়া বটতলী মোটর ষ্টেশন হতে অসংখ্য যাত্রী প্রতিদিন চট্টগ্রাম যাতায়াত করেন বলে সভায় জানান। যাত্রীরা এক শ্রেণীর শ্রমিকের হাতে নির্যাতিত ও নাজেহাল করার অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে এ সার্ভিসকে অর্থবহ ও সুগম করার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থার যে কোন ভূমিকা পালন করবে বলে অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান উপস্থিত সবাইকে আশ্বস্ত করেন। এ সময় লোহাগাড়া কর্মচারী পরিষদ সভাপতি মিছবাহ উদ্দিন রাজিবের নেতৃত্বে লোহাগাড়া বটতলী দোকান কর্মচারীবৃন্দ, এলাকার জনসাধারণ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, এ সার্ভিস চট্টগ্রাম শাহ আমানত ব্রীজ হতে লোহাগাড়া বটতলী পর্যন্ত আসা-যাওয়া করবে। আগে সার্ভিস চট্টগ্রাম থেকে দোহাজারী পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। এমপির প্রত্যক্ষ হস্তক্ষেপে তা লোহাগাড়া পর্যন্ত প্রসারিত হওয়ায় এলাকাবাসীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র দাবী করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*