ব্রেকিং নিউজ
Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | লোহাগাড়ায় মেধা নিরূপন পরীক্ষার নামে প্রতরণার অভিযোগে আটক ২

লোহাগাড়ায় মেধা নিরূপন পরীক্ষার নামে প্রতরণার অভিযোগে আটক ২

14

এলনিউজ২৪ডটকম : লোহাগাড়ায় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের মেধা নিরূপনী পরীক্ষার নামে প্রতারণার অভিযোগে দু’ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। লোহাগাড়া থানা পুলিশ উপজেলা সদরের মোস্তফা বেগম গার্লস হাই স্কুল এন্ড কলেজ থেকে তাদেরকে আটক করেন। আটককৃতরা হলেন যথাক্রমে আতিকুল ইসলাম (২২) লোহাগাড়া উপজেলার পশ্চিম কলাউজানের বলি পাড়ার ওসমান গণির পুত্র ও আটক নূর মোহাম্মদ (২৫) চকরিয়া উপজেলার মাইজঘোনার আবুল কালামের পুত্র।

লোহাগাড়া থানার ডিউটি অফিসার এএসআই জহিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, আটককৃতরা কয়েকদিন আগে অক্সফোর্ড টেল্যান্টসার্চ স্কলারশীপ’১৫ নামে সাতকানিয়া- লোহাগাড়ার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের মাঝে গড়ে ১৫০ টাকার বিনিময়ে ফরম বিক্রি করে। স্থানীয় অভিভাবকদের দাবী এ ফরমের সংখ্যা ৪-৫ হাজার। তবে আটককৃতরা জানিয়েছেন, তারা ৬-৭ ফরম বিক্রি করেছেন।

১৮ ডিসেম্বর সকালে মোস্তফা বেগম গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ মিলনায়তনে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদের নিয়ে এসে আয়োজকদের দেখা পাননি। কিংবা শ্রেণী কক্ষে সীট বিন্যাসও করা হয়নি। এক পর্যায়ে আটক দু’জনের দেখা পেয়ে অভিভাকরা তার কারণ জানতে চান। তাতে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতি হয়। খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুঁটে যায় এবং তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।

আটককৃতরা দাবী করছেন তাদের সংগঠনের সাথে আধুনগর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুল খালেক ও মোস্তফা বেগম গার্লস হাই স্কুলের কয়েকজন শিক্ষক উপদেষ্ট হিসেবে রয়েছেন। তবে মাষ্টার আবদুল খালেক জানিয়েছেন তিনি জড়িত নন এবং কিছুই জানেন না। অভিযোগ রয়েছে আটককৃতরা একটি রাজনৈতিক দলের সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র। তারা বিভিন্নভাবে পদক, সংবর্ধনা দেয়া ও বৃত্তি পরীক্ষার নামে ইতোপূর্বেও প্রতারণা করে আসছিল। এ নিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি হয়েছিল।

লোহাগাড়া থানা ডিউটি অফিসার আরো জানিয়েছেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কলেজ অধ্যক্ষ কাজী আশরাফ উদ্দিনকে লোহাগাড়া থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। প্রতারিত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা দাবী করছেন, নিবিড় তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। লোহাগাড়া থানা ডিউটি অফিসার জানিয়েছেন, প্রতারকদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ কেউ দাখিল করেননি। তবে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*