ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ ও সমতা প্রতিষ্ঠায় সরকার আন্তরিক : ঢাবির আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তারা

লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ ও সমতা প্রতিষ্ঠায় সরকার আন্তরিক : ঢাবির আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তারা

11106537_739852412801798_701012041_n

ইরফান এইচ সায়েম, ঢাবি ‌: লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ ও সমতা প্রতিষ্ঠা-একটি দেশের সার্বিক উন্নয়নের পূর্বশর্ত হিসেবে কাজ করে। তাই লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ ও সমতা প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে বিশ্বের যেকোন দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব হবে না। তবে লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ ও সমতা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলছে। এ ব্যাপারে বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকারও আন্তরিক। রবিবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে তিন দিনব্যাপী ‘লিঙ্গ, বৈচিত্র্য এবং উন্নয়ন’ শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন বক্তারা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের উদ্যোগে এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, ইউএসএইড বাংলাদেশ, ইউনিসেফ বাংলাদেশ, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন, কেয়ার বাংলাদেশ, জেন্ডার এন্ড ওয়াটার প্রোগ্রাম বাংলাদেশ এবং এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সহযোগিতায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার থেকে শুরু হয় এ সম্মেলন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উইমেন এন্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারপার্সন ও সম্মেলনের আহ্বায়ক তানিয়া হকের সভাপতিত্ত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) ফেলো অধ্যাপক ড. রওনক জাহান, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এওয়াইএম গোলাম কিরবিয়া, ইংরেজি পত্রিকা ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনাম, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নিবার্হী শাহীন আনাম। অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও অনির্বায কারণে উপস্থিত হতে পারেনি তিনি। ড. রওনক জাহান বলেন, লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ এবং সমতা প্রতিষ্ঠা নিয়ে জীবনের শুরু থেকে কাজ করে যাচ্ছি আমি। ভবিষৎতেও এটা অব্যহত রাখতে চাই। এওয়াইএম গোলাম কিরবিয়া বলেন, লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ এবং সমতা প্রতিষ্ঠার লক্ষে বিগত চার বছর যাবত কাজ করে যাচ্ছে দেশের ক্ষমতাসীন সরকার। যা আগে ছিল না। এ ব্যাপারে সরকার প্রধান শেখ হাসিনা ইতিবাচক সাড়া দেয় বলে তিনি উল্লেখ করেন। মাহফুজ আনাম বলেন, দেশের সার্বিক উন্নয়নে লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ এবং সমতা প্রতিষ্ঠা অতীব প্রয়োজন। বিষয়টি নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলছে। এসময় তিনি এদেশের মিডিয়া এসব সমস্যা দূরীকরণে সক্রিয় অংশগ্রহণ করে বলে উল্লেখ করেন। শাহীন আনাম বলেন, ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’ সংগঠনটি লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ এবং সমতা প্রতিষ্ঠার লক্ষে বাংলাদেশে নানা কাজ করে যাচ্ছে। প্রসঙ্গত, তিন দিনব্যাপী এ সম্মেলনে বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস, ভারত, পাকিস্তানসহ বিভিন্ন দেশের ৫ শতাধিক গবেষক, সমাজবিজ্ঞনী, শিক্ষক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষার্থী, নারী আন্দোলনকর্মী অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনের শেষ দিনে তিনটি প্যারালল সেশন অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*