ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | লামায় ১৮ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো শুরু

লামায় ১৮ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো শুরু

Lama Campain Photo

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা : সারা দেশের ন্যয় বান্দরবানের লামা উপজেলায়ও ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এবার উপজেলার স্বাভাবিক ও প্রতিবন্ধি ১৭ হাজার ৯২৩ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। শনিবার সকাল ৮টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাঙ্গনে হাসপাতাল পাড়ার বাসিন্দা নুর মোহাম্মদের মেয়ে আফসিন নুর ওয়াজীহাকে ক্যাপসুল খাওয়ানের মধ্যদিয়ে ক্যাম্পেইন কার্যক্রম উদ্বোধন করেন, পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম। এ সময় বান্দরবানের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. অংশৈপ্রু মার্মা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. উইলিয়াম লূসাই, আবাসিক চিকিৎসক ডা. শফিউর রহমান মজুমদার, প্রকল্প অর্গানাইজার অশেস বড়–য়া, মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (ইপিআই) আবদুল কাদের ও স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমীরন বড়–য়া, মিকু বড়–য়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত পূর্ব নির্ধারিত কেন্দ্রের পাশাপাশি ভ্রাম্যমান শিশুদের জন্য বাস স্টেশন ও নৌঘাটে এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, একটি পৌরসভাসহ উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন কমিউনিটি ক্লিনিকসহ নির্ধারিত ১৫৪টি স্থানে একযোগে ভিটামিন এ ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ৩জন করে সর্বমোট ৪৬২জন স্বাস্থ্য কর্মী ও স্বেচ্চাসেবী কাজ করছেন। ছয় মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ২ হাজার ১৭৮ জন ও ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ১৫ হাজার ৭১২ জন স্বাভাবিক ও ৩৩জন প্রতিবন্ধি শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

লামা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. উইলিয়াম লুসাই বলেন, ভিটামিন ‘এ’ দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধিতে সহায়তা করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শিশুমৃত্যুর ঝুঁকি কমায়। ‘এ’ ক্যাপসুল (১০০,০০০ আই ইউ) খাওয়া থেকে দুর্গম পাহাড়ি এলাকার একটি শিশুও যাতে বাদ না পড়ে, সে ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি মনিটরিং করা হবে। তিনি আরও বলেন, ৬ মাসের কম বয়সী শিশু, ৫ বছরের বেশী শিশু, ৪ বছরের মধ্যে ভিটামিন এ ক্যাপসুল প্রাপ্ত শিশু ও অসুস্থ শিশুকে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*