ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | যারা ধর্মের নামে মানুষ খুন করে, তাদের কোন ধর্মেই স্থান নেই : প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর

যারা ধর্মের নামে মানুষ খুন করে, তাদের কোন ধর্মেই স্থান নেই : প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর

Lama Ministar  Photo

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা : যারা ধর্মের নামে মানুষ খুন করে, তাদের কোন ধর্মেই স্থান নেই। মানুষ খুন করাই তাদের ধর্ম। তারা সংখ্যায় অতি নগন্য। আর ভাল মানুষেরা এখনো সংখ্যায় বেশী এবং তাদের বিজয়ও অবস্যম্ভাবী। রোববার বিকালে বান্দরবানের লামা উপজেলায় ভিজিএফ চাউল, সোলার প্যানেল, সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি আরও বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার উন্নয়ন বান্ধব সরকার। এ সরকারের আমলে বান্দরবান জেলায় রাস্তা, ঘাট, কালভার্ট, মসজিদ, মন্দির, বৌদ্ধ বিহার, ব্রিজ, স্কুল, মাদ্রাসাসহ ব্যাপক উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এ উন্নয়ন ধারা অব্যাহত থাকবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বান্দরবান জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক বলেন, বাংলাদেশ খাদ্য শস্যের স্বয়সম্পূর্ণ, বান্দরবানের খাদ্যে কোন সংকট নাই। সম্প্রতী বান্দরবান থানছিতে পাহাড়ী এলাকায় খাদ্য সংকট ঘটেছে, মানুষ না খেয়ে মরে যাচ্ছে। এটি ভিত্তিহীন একটি কথা। যা আদৌ সত্য নয়। কিছু বেসরকারী সংস্থা দ্বারা এটি গুজব ছড়িয়ে ছিল।

লামা উপজেলা পরিষদ চত্বরে নির্বাহী অফিসার খালেদ মাহ্মুদ’র সভাপতিত্বে ভিজিএফ চাউল বিতরণ ও আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বান্দরবান জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বান চাকমা, লামা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইসমাইল, পৌরসভা মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, জেলা পরিষদ সদস্য ফাতেমা পারুল, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ মাহাবুবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক ও গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা, লামা সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন ও লামা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল হোসেন প্রমুখ। আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি বীর বাহাদুর এমপি লামা সদর ইউনিয়নের ৮৫০ দরিদ্র পরিবারের মাঝে বিশ করে কেজি চাউল, ৬ টি প্রতিষ্ঠানে সোলার, ৪০টি সেলাই মেশিন ও লামা পৌরসভার ৩১জন ইমামকে সম্মানী ভাতা প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*