Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | বিয়ের দাওয়াত খেয়ে হাসপাতালে ৭০ জন

বিয়ের দাওয়াত খেয়ে হাসপাতালে ৭০ জন

205217PANনিউজ ডেক্স : পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার ময়দানদিঘী ইউনিয়নে বিয়ে বাড়ির খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন নারী ও শিশুসহ অন্তত ৭০ জন। বর-কনেসহ তাদের পঞ্চগড়ের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর থেকে তাদের হাসপাতালে নেয়া শুরু হয়। খাবারে বিষক্রিয়ায় তারা অসুস্থ হয়েছেন বলে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন ।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ময়দানদিঘী ইউনিয়নের গাইঘাটা এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে মাজেদুল ইসলামের সাথে একই ইউনিয়নের কাদেরপুর এলাকার আমিরুল ইসলামের মেয়ে আম্বিয়া খাতুনের বিয়ে হয়। সোমবার মাজেদুলের বাড়িতে বৌভাতের আয়োজন ছিল। দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত খাওয়া দাওয়া করেন আমন্ত্রিতরা। এরপর বাড়ি ফিরে রাতে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। ডায়রিয়া,বমি, পেট ব্যথাসহ নানা উপসর্গ নিয়ে রাতভর কষ্ট করেন অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। অসুস্থ প্রত্যেকই বিয়ে বাড়িত খাবার খেয়েছন বলে জানা যায়। অসুস্থ্যতার মাত্রা বেড়ে গেলে মঙ্গলবার দুপুর থেকে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা শুরু হয়। সন্ধ্যা পর্যন্ত বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬০ জন ও পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ৯ জন ভর্তি হয়েছেন। রোগীর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জায়গার সংকুলান না হওয়ায় প্রতি সিটে দুজন করে রোগী রাখা হয়েছে। বারান্দা ও মেঝেতে বিছানা পেতে চিকিৎসা নিচ্ছেন অনেকে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই রোগীদের খোঁজ খবর নিতে যান পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন। এ সময় পুলিশ সুপার ইউসুফ আলী ও সিভিল সার্জন ডা.নিজাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসক ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন।

বরের বাবা সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘সোমবার সুন্দরভাবেই বৌভাতের আয়োজন সম্পন্ন হয়। গভীর রাত থেকে এক এক করে অসুস্থ্য হওয়ার খবর আসতে থাকে। এমনকি আমাদের পরিবারের লোকজন ও বর-কনেসহ সবাই অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে। সকলে এখন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছি। জানিনা কিভাবে এ ঘটনা ঘটেছে।’

biman-ad

বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা.জাহিদ হাসান বলেন, ‘সকল রোগীর লক্ষণ দেখে আমরা মনে করছি খাবারে পয়জনিংয়ের কারণে তারা অসুস্থ্য পড়েছেন। হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!