ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | ফুটেজের সাথে মিডিয়া প্রচারিত ছবির অমিল : ডিএমপি

ফুটেজের সাথে মিডিয়া প্রচারিত ছবির অমিল : ডিএমপি

download (10)

ইরফান এইচ সায়েম : পয়লা বৈশাখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় শ্লীলতাহানির ঘটনায় পুলিশের কাছে প্রচুর অভিযোগ এসেছে। ডিএমপির দেয়া মোবাইল ফোনে নারীরা তাদের নির্যাতনের ঘটনার বর্ণনা করছেন। অভিযোগের এসব ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এদিকে, রোববার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গঠিত (ডিএমপি) তদন্ত কমিটির সদস্যরা। এসময় তদন্ত কমিটির সভাপতি ও অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইব্রাহিম ফাতেমী বলেন, তদন্ত কমিটি গঠন হওয়ার পর ফোনে অনেকেই এ বিষয়ে তথ্য দিচ্ছে। তথ্যগুলো যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে।

এদিকে, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, নববর্ষের দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় যৌন হয়রানীর গনমাধ্যমে যে ছবি প্রচারিত হয়েছে তা ঠিক কিনা তা খতিয়ে দেখতেই অনুসন্ধানী টিম করা হয়েছে। পুলিশের যে ভিডিও ফুটেজ রয়েছে তার সঙ্গে মিডিয়া প্রচার করা সংবাদের যথেষ্ট অমিল রয়েছে। একটি মহল অন্য জায়গার ছবিকে পুজি করে পহেলা বৈশাখের নারী নির্যাতনের ছবি বলে বিভ্রান্ত ছড়াচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন। ডিএমপি কমিশনার বলেন, অনেক পত্রিকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এবং থার্টি ফার্ষ্ট নাইটের ঘটনার ছবি পহেলা বৈশাখের বলেও প্রচার করেছে। আমাদের নিকট ভিডিও যে ফুটেজ রয়েছে তাতে দেখা যায় অনেক লোকের ভিড়ে কয়েকজন নারী আটকা পড়েন। এমনকি একজন পড়েও যান। এখন বিবেচ্য বিষয় হচ্ছে কেউ উদ্দ্যেশ্য প্রনোদিতভাবে ওই নারীদের উত্যক্ত করেছে কি না সেটি-ই যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। ঘটনার দিনের কোন ছবি কোন মানুষের কাছে পাওয়া যায় নি দাবী করে তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে হাজার হাজার মানুষের কাছে অ্যন্ড্রয়েড মোবাইল ছিল। কিন্তু এ ধরণের একটি ঘটনার কোন ছবি কেউ আমাদের দিতে পারেন নি। রোকেয়া হল কিংবা ঢাবির কোন শিক্ষার্থী পুলিশের নিকট কোন এ ধরনের কোন তথ্য দেননি। রাজধানীকে সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় আনার জন্য ২০০ কোটি টাকার একটি বাজেট হচ্ছে জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, অতিদ্রুত পুরো রাজধানীকে সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে। যাতে করে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ দমনে প্রকৃত অপরাধী সনাক্তে সহজ হয়। রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে অতিরিক্ত কমিশনার ইব্রাহিম ফাতেমী আরো বলেন, পুলিশবাহিনী সঠিকভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করছে। তবে টিএসসির ঘটনাটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় কারা জড়িত, এ ঘটনা কি আদো ঘটেছে কিনা? কোন মাত্রায় ঘটেছে, কি ধরণের শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছে মেয়েরা। এগুলা তদন্ত করার জন্য আমরা এসেছি। আর ওই সময় যে আইশৃঙ্খলা বাহিনী ছিল তাদের কোন অবহেলা ছিল কিনা। তাও খতিয়ে দেখব। তিনি বলেন, এ ধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনা না ঘটে সেজন্য ইতিমধ্যে আমরা একটা মামলা নিয়েছি এবং পত্রিকায় বিজ্ঞাপনও দিয়েছি ফুটেজ দেখে। যাতে অপরাধীরা চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসেতে পারি। অনুরোধ করবো, ওইদিন ঘটনার আশপাশে যারা ছিল কিংবা ভিকটিম তারা আমাদেরকে পরিচয় গোপন করে তথ্য দিন। এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদে রবিবারও বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও ছাত্রসংগঠন প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে। ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি লিটন নন্দী বলেন, এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার এবং ঢাবির ব্যর্থ প্রশাসনের পদত্যাগের দাবিতে আমরা আন্দোলন করে যায়। তবে এ ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য ঢাবি প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নানা ষড়যন্ত্র করছে বলে তিনি মনে করেন। আজ সোমবার দুপুর ১১টায় ছাত্র ইউনিয়নের উদ্যোগে কার্জন হল থেকে অপরাজেয় বাংলা পর্যন্ত একটি মানববন্ধনের আয়োজন করবে। এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১১টায় মানববন্ধন করবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। পুলিশ প্রত্যাহার নিয়ে বিভ্রান্তিকর বক্তব্য : রবিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের মোহাম্মদ ইব্রাহিম ফাতেমী বলেন, আমাদের পুলিশের এক এসআইকে ক্লোজড করা হয়েছে। এসময় তার সাথে থাকা রমনা জোনের এডিসি মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, তাকে ক্লোজড করা হয়নি। কর্তব্য কাজে এক পুলিশ সদস্যের অবহেলার অভিযোগ পেয়ে ওই পুলিশ সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে। তার এ বক্তব্যের পর এডিসি মোহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, দুঃখিত ওই পুলিশ সদস্যকে ক্লোজড করা হয়নি। ওইদিন কি ঘটেছিল-তা জানার জন্য তাকে ডেকেছে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা। এদিকে, শাহবাগ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম শনিবার সাংবাদিকদের বলেন, কতর্ব্যকাজে অবহেলার অভিযোগে এ ঘটনায় আলী আশরাফ নামে এক পুলিশের এসআইকে ক্লোজড করা হয়েছে। ওই এলাকায় প্রায়ই শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটে : রবিবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ডিএমপির তদন্ত কমিটির সদস্যরা। এসময় তারা ঘটনাস্থলের আশপাশে বিভিন্ন প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলেন। এসময় উদ্যান গেটের চায়ের দোকানদার হাবিব বলেন, বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে এই এলাকায় প্রায়ই এ ধরণের ঘটনা ঘটে। ওইদিনও অনেক মেয়েকে অজ্ঞান অবস্থায় আমার দোকানে আসা হয়। পরে বিশ্রাম নিয়ে চলে যেত তারা। মো: শাহজাহান নামের আরেক দোকানদার বলেন, এই এলাকায় প্রতিনিয়তই এ ধরণের ঘটনা ঘটে। গত ১৬ ডিসেম্বরের দিন এ জায়গায় এক মেয়ে তাঁর গায়ের উড়না হারিয়ে ফেললে আমি একটা গামছা দিই। পরের দিন এসে সেই মেয়েটি আমাকে গামছাটা ফেরত দিয়ে যায়। এসময় এক ফটো সাংবাদিক তদন্ত কমিটির সদস্যদের বলেন, আমরা আড্ডা দেয়ার জন্য প্রায়ই উদ্যান গেটের চায়ের দোকানে বসি। একুশে ফেব্রুয়ারি, ১৬ ডিসেম্বর, পহেলা বৈশাখসহ বিভিন্ন উৎসবে এ জায়গায় এ ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনাগুলো ঘটে। চারুকলার শিক্ষার্থীদের ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম : এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীরা পুলিশকে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে। রবিবার দুপুরে শাহবাগ থানা ঘেরাও করে এ কর্মসূচি দেন শিক্ষার্থীরা। এর আগে লাঞ্ছিতর ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা চারুকলার রাস্তার উপর ছবি আঁকে এবং মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। পরে সেখান থেকে একটি মিছিল নিয়ে শাহবাগ থানা ঘোরাও কর্মসূচিতে যান। এর আগেই থানার প্রধান গেটটি বন্ধ করে দেয়া হয়। শিক্ষার্থীরা শাহবাগ থানা গেটের সামনে অপরাধীদের বিষয়ে ওসি মো. সিরাজুল ইসলামের বক্তব্য শুনতে চান। তখন ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, পুলিশ অপরাধীদের চিহ্ন করার কাজ করে যাচ্ছে। প্রসেসিং চলছে। এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সহযোগী চান। তিনি আরো বলেন, আমরাও এ ঘটনার নিন্দা জানাই। শিক্ষার্থীদের মধ্যে আরিফ সিদ্দিকী সাংবাদিকদের জানান, চারুকলার সাধারণ শিক্ষার্থীরা পুলিশকে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়া হয়েছে। অপরাধীদের ২৪ ঘন্টায় গ্রেফতার করা না হলে পরবর্তী কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। গণজাগরণ মঞ্চের মশাল মিছিল : এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মশাল মিছিল করেছে গণজাগরণ মঞ্চ। রবিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহবের জাতীয় জাদুঘরের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশ করে মঞ্চের কর্মীরা। পরে একটি মশাল মিছিল বের করে মঞ্চের কর্মীরা। মিছিলটি শাহবাগ থেকে শুরু হয়ে ঢাবির টিএসসি হয়ে আবার শাহবাগে এসে শেষ হয়। সমাবেশে ডা. ইমরান এইচ সরকার বলেন, এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। অবিলম্বে দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে সংশ্লিষ্টদের অনুনোধ জানায়। তা না হলে এ ঘটনাগুলো বারবার ঘটবে বলে তিনি মনে করেন। প্রক্টরকে অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ : এ ঘটনায় কর্তব্যে অবহেলাকারী পুলিশ সদস্য ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডির অপসারণের দাবিতে ঢাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্র ফেডারেশন ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। রবিবার দুপুরে পৃথক পৃথক ব্যানারে তারা এই কর্মসূচী পালন করে। বিভিন্ন সংগঠনের নিন্দা ও জড়িতদের বিচারের দাবি : এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে রোববার বাংলাদেশ গ্রাজুয়েট প্রাথমিক সমিতির সভাপতি ফরিদ উদ্দিন কামাল ও সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, এ ঘটনায় জড়িত এবং দায়িত্বে অবহেলাকারী পুলিশ সদস্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য সংশ্লিষ্টদের জোর দাবী জানাচ্ছি। অবিলম্বে এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার, বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা। রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান সংগঠনের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য শহীদুল ইসলাম সবুজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*