ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের বাধ্যতামূলক মাঠ পর্যায় থাকতে হবে

প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের বাধ্যতামূলক মাঠ পর্যায় থাকতে হবে

Gov20150719153621

প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের বাধ্যতামূলক মাঠ পর্যায় থাকতে হবে। চাকরি জীবনের শুরুতে তাদের মাঠ প্রশাসনে নূনতম পাঁচ বছর কাজ করতে হবে। এমন শর্ত নিয়ে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের মাঠ প্রশাসন বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। জন প্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে এ সংক্রান্ত নীতিমালা তৈরির কাজ অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে গেছে জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়। বিষয়টি নিয়ে জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরি প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয়ে কথাও বলেছেন।

জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের চাকুরির শর্তে পাঁচ বছর মাঠ প্রশাসনে থাকার বাধ্যবাধকতা আসছে। তবে বিয়ষটি এখনো চুড়ান্ত হয়নি।

জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, বিষয়টি করা হচ্ছে। তবে কোন ব্যাচ থেকে কার্যকর হবে তা নিয়ে এখনো আলোচনা চলছে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে সবুজ সংকেত পাওয়া গেছে। তবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নতুন মন্ত্রি হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার কারণে এ বিষয়ে নতুন মোড় নিতে পারে।

জানা গেছে, সম্প্রতি জন প্রশাসন সচিব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন সচিবের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ওই কর্মকর্তাকে বিষয়টি বুঝিয়ে বললে ওই সচিব রাজি হয়েছেন বলেও জানা গেছে।

সূত্র বলছে, বিসিএস কোন ব্যাচ থেকে এটি কার্যকর হবে সেটি চুড়ান্ত হয়নি। তবে প্রাথমিক ভাবে ২৫তম ব্যাচ থেকে এটি কার্যকর করার চিন্তা করা হচ্ছে।

এদিকে, মাঠ প্রশাসনে যেতে হবে এমন তথ্য প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তারা সহকর্মীদের মাধ্যমে জানতে পেরে অনেকেই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। অনেক কর্মকর্তা আগ্রহ নিয়ে জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট ডেস্কে যোগাযোগ করছেন এর বিস্তারিত জানতে।

ওই দুই নারী কর্মকর্তা  বলেন, চাকুরির শুরু থেকে সচিবালয়ে কাজ করছি। এখন যদি পাঁচ বছর মাঠে থাকতে হয় তাহলে সমস্যা হবে। পরিবার পরিজন নিয়ে ঢাকায় একটি স্থায়ী পরিবেশ তৈরি হয়ে গেছে।

জানা গেছে, মাঠ প্রশাসনে কাজের অভিজ্ঞতা বাড়াতে সরকার এমনটি করতে চায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*