ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কর্মবিরতি

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কর্মবিরতি

Teachers-lg20150608161438

প্রস্তাবিত অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামো বাতিল ও তা পুনর্নির্ধারণ এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল ঘোষণার দাবিতে দেশের সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা কর্মবিরতি ও অবস্থান ধর্মঘট পালন করেছে। সোমবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত এ কর্মবিরতি ও অবস্থান ধর্মঘট পালন করা হয়। বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের ডাকে একযোগে ফেডারেশনভুক্ত ৩৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এ কর্মসূচিতে অংশ্রগহণ করে।

কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির আহ্বানে সোমবার সকাল ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল স্তরের শিক্ষক কর্মবিরতি ও অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনের সম্মুখে বটতলায় তারা এ কর্মসূচি পালন করে।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নাজমা শাহীন, অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক আব্দুল আজিজ, অধ্যাপক আজিজুর রহমান, অধ্যাপক ফেরদৌস হোসেন, অধ্যাপক মো. রহমত উল্লাহ, অধ্যাপক নিজামুল হক ভূঁইয়া ও অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া প্রমূখ।

কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, এ কর্মসূচি সরকার-বিরোধী কোনো কর্মসূচি নয়, কিংবা কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে আন্দোলনও নয়। এ কর্মসূচি শুধুমাত্র শিক্ষকদের ন্যায্য সম্মান ও স্বতন্ত্র বেতন স্কেল আদায়ের জন্য। চলতি মাসের মধ্যে শিক্ষকদের স্বতন্ত্র বেতন কাঠামো প্রণয়নের জন্য ঘোষণা আসতে হবে। শিক্ষকদের জন্য নতুন বেতন কাঠামো প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের মধ্যবর্তী সময়ে ঘোষিত বেতন কাঠামো পুনর্নির্ধারণ করে সকল বৈষম্য দূরীকরণপূর্বক সিলেকশন গ্রেড অধ্যাপকদের বেতন-ভাতা সিনিয়র সচিবের সমতুল্য করা; অধ্যাপকদের বেতন-ভাতা পদায়িত সচিবের সমতুল্য করা; সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষকদের বেতন কাঠামো ক্রমানুসারে নির্ধারণ করাসহ শিক্ষকদের যৌক্তিক বেতন স্কেল ও মর্যাদা নিশ্চিত করতে হবে।

শিক্ষকদের যৌক্তিক ও ন্যায্য দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আগামীতে শিক্ষামন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, শিক্ষা মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে। আগামী ২০ জুন ২০১৫ জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী দেশসমূহের অনুরূপ বেতন কাঠামো ঘোষণার জন্য প্রস্তাবনা উপস্থাপন করা হবে বলেও জানান বক্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*