Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | পানির নিচে তলিয়ে গেছে রাঙ্গামাটির ঝুলন্ত সেতু

পানির নিচে তলিয়ে গেছে রাঙ্গামাটির ঝুলন্ত সেতু

Rangamati-Hanging-Bridge-20170813163940

নিউজ ডেক্স : তিন দিনের টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের কারণে কাপ্তাই হ্রদের পানি বৃদ্ধি পেয়ে রাঙামাটির সিম্বল খ্যাত ঝুলন্ত সেতু পানির নিচে থলিয়ে গেছে। এরই মধ্যে ৩৩৫ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৭ ফুট প্রস্থের এ সেতুটি ৫ ফুট পানির গভীরে তলিয়ে গেছে বলে জানায় পর্যটন কর্তৃপক্ষ।

গত শুক্রবার থেকে টানা বর্ষণে গতকাল শনিবার দুপুরে ঝুলন্ত সেতুটি দুই থেকে আড়াই ফুট পানিতে ডুবে যায়। ক্রমাগত পানি বাড়ায় রোববার সেতুটি আরও দুই ফুট পানির নিচে তলিয়ে যায়।

রাঙ্গামাটি পর্যটন মোটেল ও হলিডে কমপ্লেক্স ব্যবস্থাপক আলোক বিকাশ চাকমা জানান, গত কয়েক দিনের অতি বর্ষণে উজান থেকে নামা পাহাড়ি ঢলে আকস্মিক কাপ্তাই লেকের পানির উচ্চতা অতিরিক্ত হারে বেড়ে গেছে। এতে রাঙ্গামাটি পর্যটন কমপ্লেক্সে অবস্থিত মনোরম ঝুলন্ত সেতু ডুবে গেছে। ফলে সেতু দিয়ে পারাপার বন্ধ হয়ে গেছে।

তিনি আরও জানান, প্রতি পর্যটন মৌসুমে এই ঝুলন্ত সেতু হতে মাসে ৫-৬ লাখ টাকা রাজস্ব আয় হয়। কিন্তু প্রতি বর্ষা মৌসুমে কাপ্তাই লেকের পানি বাড়লে সেতুটি ডুবে যায়। এতে অন্তত তিন মাস পানিতে তলিয়ে থাকে। এ সময়ে সেতুটির রাজস্ব আয় সম্পূর্ণ বন্ধ থাকে। অথচ আরও উচু স্তরে সেতুটির পুনর্নির্মাণ করা হলে তলিয়ে যেত না। বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, প্রবল বৃষ্টির কারণে দুর্গম বাঘাইছড়ি উপজেলা সদরে বন্যায় সহস্রাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। জেলার নিন্মাঞ্চলও বন্যায় প্লাবিত হচ্ছে। কিছু সংখ্যক পরিবারকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়েছে। সড়কের ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়ায় দীঘিনালা- সাজেক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মানজারুল মান্নান জানান, বাঘাইছড়ি উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম বন্যার পানিতে প্লাবিত হওয়ায় প্রায় ১৭-১৮শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তাদের উদ্ধার করে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*