ব্রেকিং নিউজ
Home | লোহাগাড়ার সংবাদ | পদুয়া বাজারে অগ্নিকান্ডে দেড় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

পদুয়া বাজারে অগ্নিকান্ডে দেড় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

06

মোঃ জামাল উদ্দিন : লোহাগাড়ার পদুয়া বাজারে ২১ জুন বিকেলে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে কাঁচা বাজারের ৩টি সেড পুড়ে গেছে। সেডের নিচে স্থাপিত ৮০ জন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্থরা ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ দেড় কোটি টাকা বলে দাবী করছেন।

একটি চা দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাতই অগ্নিকান্ডের মূল কারণ বলে সাতকানিয়া ফায়ার ষ্টেশন অফিসার সাদাত হোসেন জানিয়েছেন। তিনি দাবী করছেন, ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ১৫ লাখ টাকা এবং তিনি ক্ষতিগ্রস্থ ৩৩ জনের নাম লিপিবদ্ধ করেছেন। প

দুয়া বাজার হকার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি নুরুল ইসলাম সিকদার জানিয়েছেন, সেডের নিচে কাপড়, শুটকী, গার্মেন্টস, মিষ্টি, মুরগী ও তরিতরকারির মোট ৬৬টি দোকান ছিল। যারা অগ্নিকান্ডে নিঃস্ব হয়ে গেছেন তার মধ্যে মোঃ জামাল উদ্দিন, আবুল হাশেম ও নাজিম উদ্দিনের ক্ষতির পরিমাণ অধিক। তারা ঈদকে সামনে রেখে গার্মেন্টস ব্যবসার বিপুল পরিমাণ মালামাল মজুদ করেছিলেন।

অপরাপর ব্যবসায়ীরা একইভাবে চড়া সুদে টাকা নিয়ে মালামাল মজুদ করেছিলেন। অগ্নিকান্ডের পর তারও পথে বসেছেন। বিকেল সাড়ে ৩টায় অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হওয়ার আধা ঘন্টা পর সাতকানিয়া ফায়ার ষ্টেশন কর্মকর্তার নেতৃত্বে অগ্নি নির্বাপক দল তেওয়ারীহাটে এসেও সরু গলির কারণে ভিতরে প্রবেশ করতে পারেননি বলে প্রত্যক্ষদর্শী ও হাটে ক্রেতা-বিক্রেতারা অভিযোগ করেছেন। আজ ছিল হাটবার। বাজারে বিপুল সংখ্যক ক্রেতা-বিক্রেতার সমাগম হয়। তারা অভিযোগ করছেন সেডগুলো মূলতঃ অস্থায়ী দোকানদারের নির্মাণ করা হয়।

বিধিবহির্ভূতভাবে একটি মহল রাজনৈতিক পৃষ্টপোষকতায় লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে স্থায়ীভাবে দোকান বসিয়ে দিয়েছেন। তাদের দৌরাত্মে সেডের উত্তর-দক্ষিণ পাশে ফুটপাত দখল করে অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা করা হয়। এলাকাবাসীরা এ ব্যাপারে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেও কোন ফল পাননি। বাজার পরিচালনায় দীর্ঘদিন কোন কমিটি না থাকায় এ সমস্যা দিন দিন প্রকট আকার ধারণ করছেন।

অগ্নিকান্ডের পর পর লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ফিজনূর রহমান ও থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহজাহান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তারা ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের যথাযথ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

অপরদিকে, পদুয়া তেওয়ারীহাটের ক্রেতা-বিক্রেতারা আগামী দিনে বাজারটি অবৈধ দখলমুক্ত করা না হলে যে কোন মুহুর্তে আবারো অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*