ব্রেকিং নিউজ
Home | অন্যান্য সংবাদ | নবী-রাসুল প্রেরণের হিকমত

নবী-রাসুল প্রেরণের হিকমত

file (63)

ধর্ম ডেস্ক : আল্লাহ তাআলা নবি-রাসুল প্রেরণ করেছেন দুনিয়াতে একত্ববাদের প্রচার ও প্রসার করার জন্য। মানুষকে নবি-রাসুলগণের মাধ্যমে প্রেরণ করা হিদায়াত (আসমানি কিতাব) দান করাই হচ্ছে নবি-রাসুল প্রেরণের হিকমত-

১. একমাত্র আল্লাহর ইবাদাতের জন্য মানুষকে আহ্বান করা এবং সর্বপ্রকার শিরক থেকে তাদের বারণ করা। আল্লাহ বলেন, ‘আর আমি অবশ্যই প্রতিটি জাতির নিকট একজন করে রাসুল প্রেরণ করেছি, যাতে করে তাদের বলে, ‘তোমরা একমাত্র আল্লাহর ইবাদাত কর এবং তাগুত তথা শিরক থেকে দূরে থাক।’ (সুরা নহল : আয়াত ৩৬)

২. মানুষকে আল্লাহ পর্যন্ত পৌঁছার রাস্তা দেখিয়ে দেয়া। আল্লাহ বলেন, ‘তিনিই নিরক্ষরদের মধ্য থেকে একজন রাসুল প্রেরণ করেছেন, যিনি তাদের কাছে পাঠ করেন তাঁর আয়াতসমূহ (কুরআন), তাদেরকে পবিত্র করেন এবং শিক্ষা দেন কিতাব ও সুন্নাতের। ইতিপূর্বে তারা ছিল ঘোর পথভ্রষ্টতায় লিপ্ত।’ (সুরা জুমআ : আয়াত ২)

৩. কিয়ামতের দিনে মানুষ তাদের রবের নিকটে পৌঁছার পরের অবস্থা বর্ণনা দেয়া। আল্লাহ বলেন, ‘ (হে রাসুল) আপনি বলুন, হে মানুষ সমাজ! আমি তোমাদের জন্য স্পষ্ট ভয়-প্রদর্শনকারী। সুতরাং যারা ঈমানদার এবং সৎকর্মশীল তাদের জন্য রয়েছে ক্ষমা ও সম্মানজনক রুজি। আর যারা আমার আয়াতসমূহকে ব্যর্থ করার জন্যে চেষ্টা করে, তারাই দোজখের অধিবাসী।’ (সুরা হাজ : আয়াত ৪৯-৫১)

৪. মানুষের উপর (দৈনন্দিন ও পরকালীন) হুজ্জত তথা দলিল-প্রমাণ কায়েম করা। আল্লাহ বলেন, ‘সুসংবাদদাতা ও ভীতি-প্রদর্শনকারী রসূলগণকে প্রেরণ করেছি, যাতে রাসুলগণের পরে আল্লাহর প্রতি অপবাদ আরোপ করার মত কোনো অবকাশ মানুষের জন্য না থাকে।’ (সুরা নিসা : আয়াত ১৬৫)

৫. মানুষের জন্য রহমতের স্বরূপ। কারণ নবি-রাসুলগণই মানুষকে গোমরাহী থেকে হিদায়াত লাভের পথ দেখান। আল্লাহ বলেন, ‘আমি আপনাকে বিশ্বজাহানের জন্য কেবল মাত্র রহমত স্বরূপ প্রেরণ করেছি।’ (সুরা আম্বিয়া : আয়াত ১০৭)

সুতরাং মুসলিম উম্মাহর উচিত শেষ নবি ও রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের উপর নাজিলকৃত কুরআন অনুযায়ী জীবন-যাপন করা। আল্লাহ তাআলা উম্মাতে মুহাম্মাদিকে কুরআন অনুযায়ী জীবন গড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*