Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | দুর্নীতির অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেলেন হুইপ সামশুল

দুর্নীতির অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেলেন হুইপ সামশুল

নিউজ ডেক্স : জাতীয় সংসদের হুইপ ও চট্টগ্রামের পটিয়ার সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীকে দুর্নীতির অভিযোগ থেকে অব্যাহতি প্রদান করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (৮ মে) দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সচিব মো. মাহবুব হোসেন স্বাক্ষরিত এক আদেশে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের সত্যতার কোনো প্রমাণ না পাওয়ায় তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, উক্ত অব্যাহতিপত্রটি ওই দিনই মন্ত্রিপরিষদ সচিব, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব, দুর্নীতি দমন কমিশনের মহাপরিচালক, দুদক চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব, পরিচালকসহ এবং সরকারের সংশ্নিষ্ট সকল বিভাগে পাঠানো হয়েছে। অব্যাহতিপত্রের একটি কপি হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর বরাবরেও প্রেরণ করা হয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে বিভিন্ন পত্রিকায় করা সংবাদের ওপর ভিত্তি করে এবং দুদকে বিভিন্ন ব্যক্তির করা অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন হুইপ সামশুল হক চৌধুরী সহ আরো অনেক সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করেন। দীর্ঘ প্রায় চার বছর অনুসন্ধান করে হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর নামে হওয়া সংবাদ এবং অভিযোগের সত্যতার কোনো প্রমাণ এবং হুইপের নামে-বেনামে কোনো অবৈধ সম্পদ পাওয়া যায়নি। অভিযুক্ত অন্য এমপিদের দুদক জিজ্ঞাসাবাদ করা হলেও হুইপ সামশুল হক চৌধুরীকে দুদক কখনো জিজ্ঞাসাবাদ করেনি।

এর আগে গত এপ্রিলে হুইপের বিরুদ্ধে অবৈধ আয়ের অভিযোগ তোলা পুলিশ পরিদর্শক সাইফ আমিনকে আদালত সাজা প্রদান করে। তার বিরুদ্ধে হুইপ আদালতে মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে মামলা করেন।

এই ব্যাপারে হুইপ সামশুল হক চৌধুরী বলেন, “আমি দেশের আদালত, সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান ও গণমাধ্যমের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দুদক যেকোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে অনুসন্ধান ও তদন্ত করতে পারে। তবে সত্যতা নিশ্চিত হওয়া ছাড়া অনুসন্ধানের শুরুতেই মিডিয়ায় প্রকাশ করলে সমাজে সম্মানিত ব্যক্তিদের পারিবারিক, রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে সম্মানহানী হয়। তারপরও আমি দুদককে সুষ্ঠু অনুসন্ধানের জন্য সাধুবাদ জানাই। যারা এইসব মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে ষড়যন্ত্র করেছে তাদেরকে মহান আল্লাহ হেদায়েত দান করুন। সত্যের জয় সবসময় হয়। আমার বেলায়ও সত্যের হয়েছে।”

হুইপ সামশুল হককে দুদকের অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়ায় পটিয়ার সাধারণ মানুষ ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছে।

পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম. শামশুজ্জামান বলেন, “দীর্ঘদিনের অবহেলিত পটিয়ায় গত ১৪ বছরে হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে যে উন্নয়ন হয়েছে তা কল্পনা করা যায় না। এই উন্নয়ন করতে গিয়ে যারা পটিয়ার উন্নয়নকে মেনে নিতে পারেননি তারা হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে নানারকম ষড়যন্ত্র করেছেন। দুদকে হুইপের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও তাদের ষড়যন্ত্রের অংশ। দেরীতে হলেও আল্লাহতায়ালা তাদের ষড়যন্ত্রের জবাব দিয়েছেন। পটিয়ার সাধারণ জনগণকে সঙ্গে নিয়ে হুইপ সামশুল হক চৌধুরী সবসময় এইসব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করেছেন। তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এ ক্ষেত্রে সত্যের জয় হয়েছে। এতে পুরো পটিয়াবাসী খুশি। দুদকের অনুসন্ধানে অব্যাহতি প্রমাণ করে তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন সৎ ও যোগ্য জনপ্রতিনিধি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!