ব্রেকিং নিউজ
Home | শীর্ষ সংবাদ | চুপ, হারামজাদা (স্মৃতিপত্র গল্প)

চুপ, হারামজাদা (স্মৃতিপত্র গল্প)

193

অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল খালেক : যখন থেকে বুঝি তখন থেকেই তোমাকে চেয়ে থাকতাম। চেয়ে থাকা কি অপরাধ ! যদিও বলা অপরাধ। কখনো তোমাকে বলিনি। সাহস হয়নি। কিভাবে হবে বলো’ত। আমার বাবার শাসন, প্রয়াত প্রেমানন্দ স্যার, প্রয়াত শ্রীধাম স্যার, জীবন্ত মনোরঞ্জন স্যার এবং দাদীর মমতা আমাকে মানসিকভাবে দুর্বল করে রেখেছে। তোমার ভালোবাসা আমাকে ভীতু ও কাপুরুষ বানিয়েছে। আচ্ছা, তুমি এতো ভালো কেন ? তুমি এখন কোথায়। আমি জানি তুমি সাহসী। তুমিও ত’কখনো বলোনি; ‘তোমাকে ভালোবাসি’।

এভাবে আর কতোকাল। সইতে পারিনা। তুমি সইতে পারো?

তোমাকে কি বলবো; চন্দ্র-সূর্য যতো বড়ো আমার দুঃখ তার সমান। আমার ব্যথা আমি বুঝি। তোমার ব্যথা তুমি বুঝ। চাঁপা আমার প্রিয় ফুল। তোমারও প্রিয় ছিলো। তোমাকে একবার চাঁপা ফুল দিয়েছিলাম। তুমি একটু হেসেছিলে। মুহুর্তে মুখ ভার করেছিলে। তুমি আমার পছন্দের খাবারের তালিকা নিয়েছিলে। দাওয়াতও দিয়েছিলে। তোমার পছন্দ-অপছন্দের কথাগুলো এখন কোথায় কাকে বলো। আমি’ত কান পেতে শুনতাম।

কবি রবীন্দ্রনাথের ‘নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ’ ও কবি সুভাষ’র ‘যেতে যেতে’ কবিতা আবৃত্তি করে আমি হলরূম থেকে বেরিয়ে আসতে তুমি চিমটি কেটেছিলে। আমি কিছু বুঝিনি। তোমার মনে পড়ে ? পরদিন আমি হাবাগোবার মতো জানতে চেয়েছিলাম, কেন চিমটি কেটেছো? তুমি রেগে গিয়েছিলে। আচ্ছা, আমি কি অতোসব বুঝি। তারপর বলেছিলে- চুপ, হারামজাদা।

কেন ? আমাকে হারামজাদা বলেছিলে। ভালোবাসাকে হারামজাদা বলে ! তোমাকে দ্যাখাবো, ভালোবাসা কারে কয়। হারামজাদা শব্দের মানে ও বিশ্লেষণ তোমাকে শেখবো। এই, হারামজাদী। (চলবে…)

লেখক : সম্পাদক, লোহাগাড়ানিউজ২৪ডটকম; প্রভাষক (বাংলা বিভাগ), আধুনগর ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা, লোহাগাড়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*