Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের ৯৭০ জন বন্দি কোয়ারেন্টিনে

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের ৯৭০ জন বন্দি কোয়ারেন্টিনে

image_printপ্রিন্ট করুন

নিউজ ডেক্স : করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে নানা প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ। জীবানুনাশক স্প্রে টানেল মেশিন, হাত ধোয়ার ব্যবস্থা, কোয়ারেন্টিনের জন্য আলাদা ওয়ার্ড প্রস্তুতও করা হয়েছিল।

এ কারনে কারাগারের আক্রান্তের সংখ্যাও তুলনামূলক কম ছিল। করোনার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত সাতজন কারারক্ষী ও একজন সিভিল স্টাফসহ মোট আটজন সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যারা ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন।  

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা যায়, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কারাগারে আগত নতুন বন্দিদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে কোয়ারেন্টিনে বন্দি রয়েছেন ৯৭০ জন। এদের মধ্যে কারা হাসপাতালে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ১০ জন ও সাধারণ কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৯৬০ জন। এছাড়া ৫ জন কারারক্ষী কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন।

২ হাজার ২৪৯ জন বন্দি ধারণ ক্ষমতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত বন্দি রয়েছেন ৬ হাজার ৫৭৫ জন। এদের মধ্যে হাজতি রয়েছেন ৫ হাজার ৮৯৮ জন ও কয়েদি রয়েছেন ৬৭৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৬ হাজার ২৯৯ জন এবং মহিলা ২৭৬ জন। চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে ডিভিশনপ্রাপ্ত কোনো বন্দি বর্তমানে নেই।  

জানা যায়, চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বন্দি রয়েছে ২৪৯ জন, জঙ্গি বন্দি রয়েছে ৪৭ জন, বিদেশি বন্দি রয়েছে ৪২ জন (৩ জন সাজাপ্রাপ্ত), মানসিক হাজতি রয়েছে ৪৭ জন, মায়ের সঙ্গে শিশু রয়েছে ৫১ জন।  

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. কামাল হোসেন বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে নানা প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিলাম আমরা। জীবানুনাশক স্প্রে টানেল মেশিন, হাত ধোয়ার ব্যবস্থা, কোয়ারেন্টিনের জন্য আলাদা ওয়ার্ড প্রস্তুতও করেছিলাম। নুতন বন্দি আসলে তাদের তাপমাত্রা মেপে কারাগারের চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল। আমাদের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার কারণে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়নি।

সিনিয়র জেল সুপার মো. কামাল হোসেন বলেন, করোনার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত সাতজন কারারক্ষী ও একজন সিভিল স্টাফসহ মোট আটজন সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যারা ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন। বাংলানিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!