ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | কক্সাবাজারে রোহিঙ্গা শিশু হত্যার অভিযোগে যুবক আটক

কক্সাবাজারে রোহিঙ্গা শিশু হত্যার অভিযোগে যুবক আটক

rohinga_75020150807030637

কক্সাবাজারের টেকনাফ উপজেলার পাহাড় থেকে তসলিমা (১১) নামে এক রোহিঙ্গা শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তসলিমা উপজেলার নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পের জয়নালের মেয়ে বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ক্যাম্পের পেছনরে গভীর পাহাড় থেকে ওই শিশুর গলিত দেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতের নাম মুহাম্মদ সেলিম (২৭)। তিনি শরণার্থী ক্যাম্পের রোহিঙ্গা লাল মোহাম্মদের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ জুলাই শরণার্থী ক্যাম্পের জয়নালের কন্যা শিশু তসলিমাকে দূর সর্ম্পকিত মামা সেলিম (২৭) ফুসলিয়ে বেড়ানোর কথা বলে নিয়ে যায়। ওই দিনের পর থেকে তসলিমা নিখোঁজ হয়। এদিকে তসলিমার সন্ধানে মা-বাবা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে বাবা জয়নাল বাদী হয়ে মো. সেলিমকে আসামি করে টেকনাফ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এ অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুফিজুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ শরণার্থী ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে সেলিমকে আটক করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সেলিম স্বর্ণের লোভে তসলিমার কানের দুল নিয়ে তাকে হত্যার কথা স্বীকার করেন এবং মরদেহ গভীর পাহাড়ে রয়েছে বলে জানায়।

এদিকে বৃহস্পতিবার বেলা ১০টার দিকে মরদেহের সন্ধানে এসআই মুফিজুলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘাতক সেলিমকে নিয়ে পাহাড়ে যান। সেখানে গভীর পাহাড়ের একটি গর্ত থেকে তসলিমার গলিত দেহ উদ্ধার করা হয়।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. আতাউর রহমান খোন্দকার তথ্যের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় নিহত তসলিমার বাবা জয়নাল বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ঘাতক সেলিমকে কক্সবাজার আদালতে এবং মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সন্ধ্যায় কক্সবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয় হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*