ব্রেকিং নিউজ
Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | কক্সবাজারে পৃথক ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু

কক্সবাজারে পৃথক ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু

cox-bazar_84912

নিউজ ডেক্স : কক্সবাজার জেলায় সড়ক দুর্ঘটনা, বজ্রপাত ও পুকুরে ডুবে শিশুসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার পৃথক সময়ে এসব ঘটনা ঘটে।

সূত্র মতে, কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়ার বরইতলীর বানিয়ারছড়ায় ম্যাজিক পরিবহন ও ইটবাহী ট্রাকের সংঘর্ষে পেকুয়া চৌমুহনী এলাকার নাছির উদ্দীনের ছেলে মো. কায়সার (২৮) ও পেকুয়ার মেহেরনামা এলাকার মঞ্জুর আলমের ছেলে নজির আলম (২৬) নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছে আরও অন্তত ১৫ জন। মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইটবাহী ট্রাকটি পেকুয়া থেকে এবং মিউজিক গাড়িটি লামার ফাইতং থেকে চকরিয়া আসছিল। আসার পথে দ্রুতগামী দুই গাড়ির প্রচণ্ড সংঘর্ষ হয়। এতে নিহত হয় ইটবাহী ট্রাকের শ্রমিক কায়সার ও নজির আলম। এছাড়া মিউজিক যাত্রীসহ অন্তত ১৫ জন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চকরিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল হাশিম মজুদার জানান, দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত ও অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়ি দুইটি জব্দ করা হয়েছে।

অপরদিকে, মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়িতে বজ্রপাতে স্কুলছাত্র ফারুকের (১৩) মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ৯টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ফারুক মাতারবাড়ি ইউনিয়নের উত্তর সিকদার পাড়ার মোজাম্মেল হকের ছেলে ও মাতারবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকালে বাবাকে সাহায্য করতে লবণ কুড়াতে মাঠে যায় ফারুক। এসময় বৃষ্টির সঙ্গে প্রচণ্ড বজ্রপাতের কবলে পড়ে ঘটনাস্থলেই ফারুক মারা যায়।

সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মাতারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার মাহমুদুল্লাহ। অন্যদিকে, কক্সবাজার শহরের টেকপাড়া এলাকার ‘বড় পুকুরে’ ডুবে স্কুল শিক্ষার্থী দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে গোসল করতে নেমে পুকুরে ডুবে তাদের মৃত্যু হয়।

নিহতদের মধ্যে একজন শহরের বইল্যাপাড়া ডিওয়ার্ড সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র রিগাম সুলতান লাবিব (১২)।

অপরজন গিয়াস উদ্দিন (১৩)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপর ২টার দিকে শহরের টেকপাড়া এলাকার বড় পুকুরে গোসল করতে যান কয়েকজন শিশু। গোসলের এক পর্যায়ে পুকুরে ডুবে যায় লাবিব ও গিয়াস।

প্রায় ১০ মিনিটি পর ডুবে যাওয়ার বিষয়টি আঁচ করতে পরে অন্যরা। এসময় আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে পুকুরে তল্লাশি চালিয়ে তাদের উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার শাহীন আবদুর রহমান চৌধুরী জানান, বেলা আড়াইটার দিকে দুই শিশুকে জরুরি বিভাগে আনা হয়েছিল। কিন্তু হাসপাতালে আনার আগেই তাদের মৃত্যু হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পানিতে ডুবে তারা মারা গেছে। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত কারণ জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*