Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | ঈদে চট্টগ্রাম নগরী ছাড়ছে ২৫ লাখ মানুষ

ঈদে চট্টগ্রাম নগরী ছাড়ছে ২৫ লাখ মানুষ

file67

নিউজ ডেস্ক : প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ করতে নাড়ির টানে সপরিবারে শহর ছাড়ছে মানুষ। এবারের ঈদে নগরী ছাড়ছে ২৫ লাখ মানুষ। ফলে চাপ কমছে কর্মব্যস্ত এ নগরীতে। পাল্টে যাচ্ছে নগরীর ব্যস্ততম সড়কের চিরচেনা অসহনীয় যানজটের দৃশ্য।

এবছর ঈদ উপলক্ষে টানা ৯ দিন সরকারি ছুটি থাকায় চাকরিজীবীদের অনেকে একদিন আগেই (বৃহস্পতিবার) বাড়ি ফিরছেন।

বৃহস্পতিবার নগরীর ট্রেন, লঞ্চ ও বাসস্টেশন ঘুরে দেখা গেছে, কোথাও তিল ধারণের ঠাঁই নেই। যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় সামাল দিতে বেগ পেতে হচ্ছে স্টেশনে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের।

পর্যাপ্ত যানবাহন না থাকায় যাত্রীদের গন্তব্যে পৌঁছতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ঈদে বাড়ি ফিরতে পদে পদে নানা বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে ঘরমুখো যাত্রীদের। একে তো ট্রেন-বাসের টিকিট সংকট তার ওপর টার্মিনালগুলোতে যাত্রীদের পড়তে হচ্ছে নানা ঝামেলায়। তারপরও পরিবার-পরিজন নিয়ে একসঙ্গে ঈদ করতে গ্রামে ছুটছে মানুষ।

শহর ফাঁকা হতে শুরু করলেও ঈদের আমেজ এখন গ্রামে। এদিকে ঈদে ফাঁকা নগরীতে অপরাধীরা যাতে দাপিয়ে বেড়াতে না পারে সেজন্য চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। মোতায়েন করা হচ্ছে অতিরিক্ত দেড় হাজার পুলিশ। খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম।

বৃহস্পতিবার ট্রেনেও ছিল যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। বসে থাকা যাত্রীদের তুলনায় দ্বিগুণ ব্যক্তি দাঁড়িয়ে এবং ছাদের ওপর বসে ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি ফিরছেন। একই অবস্থা ছিল নৌপথেও। শেষ মুহূর্তে বাড়িফেরা মানুষের সংখ্যা বেশি হওয়ায় অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে ছেড়েছে প্রতিটি জাহাজ।

বৃহস্পতিবার বিআরটিসি, কদমতলী শুভপুর বাসস্টেশন, গরীবউল্লাহ শাহ মাজার অলংকার, একে খান এলাকাসহ কয়েকটি বাসস্টেশন ঘুরে দেখা গেছে, বাসেও সিট খালি নেই। বাড়তি টাকা দিয়েও মিলছে না টিকিট। ফলে ঘরমুখো যাত্রীরা কোনো উপায় না পেয়ে ২০-৩০ জন করে দল বেঁধে ট্রাক, মাইক্রোবাস কিংবা অন্যান্য যানবাহন ভাড়া করে বাড়ি ফিরছেন।

এমনকি নগরীর অভ্যন্তরীণ সড়কে চলাচলকারী লক্কড়ঝক্কড় বাসও বিভিন্ন দূরপাল্লার যাত্রী পরিবহন করছে বাড়তি ভাড়ায়। এত ঝক্কিঝামেলার পরও ঘরমুখো যাত্রীদের মধ্যে আনন্দের যেন কমতি নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*