Home | দেশ-বিদেশের সংবাদ | ইসলামাবাদে ১৪৪ ধারা, আন্দোলনের হুঙ্কার পিটিআইয়ের

ইসলামাবাদে ১৪৪ ধারা, আন্দোলনের হুঙ্কার পিটিআইয়ের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বর্তমান বিরোধী নেতা ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের পর রাজধানী ইসলামাবাদে ১৪৪ ধারা জারি করেছে রাজধানী পুলিশ। ইসলামাবাদ পুলিশের মহাপরিদর্শক আকবর নাসির খান মঙ্গলবার এক টুইটবার্তায় এ তথ্য জানিয়েছেন। 

এদিকে দেশটির প্রধান বিরোধী দলীয় নেতার গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে দেশজুড়ে আন্দোলন-বিক্ষোভের ঘোষণা দিয়েছে ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ।

টুইটবার্তায় রাজধানী পুলিশের এই শীর্ষ নির্বাহী বলেন, ‘ইসলাবাদের পরিস্থিতি স্বাভাবিক; কিন্তু তারপরও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আজ থেকে রাজধানীতে ১৪৪ ধারা জারি করা হচ্ছে। জনগণের জানমালের নিরাপত্তার জন্যই এই আদেশ জারি হচ্ছে। পরবর্তী আদেশ না আসা পর্যন্ত এই ধারা কার্যকর থাকবে।’

মঙ্গলবার দু’টি মামলার শুনানিতে হাজিরা দিতে ইসলামাবাদ হাইকোর্টে গিয়েছিলেন ইমরান খান। শুনানির শুরুর আগে আদালত ভবন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পাকিস্তানের সীমান্তরক্ষী বাহিনী রেঞ্জার্স এবং কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি ব্যুরো’র (ন্যাব) একটি যৌথ দল। ন্যাবের জারি করা পরোয়ানার ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পাকিস্তানের এই বিরোধী নেতাকে।

যে পরোয়ানার ভিত্তিতে ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সেটি জারি করা হয়েছিল ১ মে। ন্যাবের চেয়ারম্যান এবং অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল নাজির আহমেদ বাট স্বাক্ষরিত সেই পরোয়না অনুযায়ী, আল-কাদির ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার আসামি হিসেবে ইমরানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ন্যাবের অভিযোগ অনুযায়ী, ক্ষমতায় থাকাকালে পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সোহাওয়া শহরে আল-কাদির বিশ্ববিদ্যালয় প্রকল্পের নামে ব্রিটেনের একটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানিকে রাষ্ঠীয় কোষাগার থেকে ১ কোটি ৯০ লাখ ডলার দিয়েছিলেন ইমরান খান, তার স্ত্রী বুশরা বিবি এবং ইমরানের রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফের কয়েক জন জেষ্ঠ্য নেতা। বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য যে জমি বরাদ্দ নেওয়া হয়, সেখান থেকেও ইমরান ও তার স্ত্রী সুবিধা নিয়েছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে পরোয়ানায়।

তীব্র প্রতিক্রিয়া পিটিআইয়ের

ইমরান খানের রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ ইতোমধ্যে দলের চেয়ারম্যানের গ্রেপ্তারকে ‘অপহরণ’ আখ্যা দিয়ে সরকারের এই ‘দমনমূলক’ পদক্ষেপের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে আন্দোলনের ডাক দিয়েছে।

ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের পর তাৎক্ষণিক এক টুইটবার্তায় পিটিআইয়ের ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেন, ‘এই মুহূর্তে পুরো জাতির উচিত এই অপহরণের প্রতিবাদ জানিয়ে রাস্তায় নেমে আসা।’

পিটিআইয়ের সেক্রেটারি জেনারেল আসাদ ওমর পৃথক এক টুইটবার্তায় বলেন, ‘উচ্চ আদালতে হামলা চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পাকিস্তানের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতাকে। পুরো বিশ্ব আজ দেখল— পাকিস্তানে এখন আর আইনের শাসন বলতে কিছু নেই।’

টুইটবার্তায় আসাদ ওমর জানান, পার্টির চেয়ারম্যানের মুক্তির দাবিতে দেশজুড়ে আন্দোলন গড়ে তুলবে পিটিআই। তিনি আরও বলেন, এমন অবস্থা হতে পারে— আঁচ করতে পেরে দলের ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মেহমুদ কুরেশিকে প্রধান করে ৬ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে দিয়েছিলেন ইমরান খান। সেই কমিটিই আন্দোলনের নেতৃত্ব দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: Content is protected !!