ব্রেকিং নিউজ
Home | অন্যান্য সংবাদ | ‘অনলাইন ঈদ শপিং’ ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে

‘অনলাইন ঈদ শপিং’ ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে

Online-Shopping20150706195823

৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ আফসার আলী। রাজধানীর ধানমন্ডিতে ব্যবসায়ী ছেলে আকরাম হোসেনের বাসায় গ্রাম থেকে বেড়াতে এসেছেন। আফসার আলী প্রতিদিনই দেখেন তার দুই নাতি-নাতনি কম্পিউটার খুলে কী যেন কিছুক্ষণ দেখে পরে নিজেরা বলাবলি করে অর্ডার তো দিয়ে দিয়েছি।

পরদিনই অবাক বিস্ময়ে আফসার আলী দেখেন অপরিচিতি লোকজন এসে নাতি-নাতনির বিভিন্ন ধরনের সালোয়ার কামিজ, শাড়ি, পাঞ্জাবি, শার্ট, জুতা, ঘড়িসহ বিভিন্ন পণ্য দিয়ে যাচ্ছে।

আফসার আলীর কৌতূলের শেষ নেই। একদিন নাতি-নাততিকে ডেকে কে বা কারা কেন এসব দিয়ে যাচ্ছে জানতে চাইলে দুই নাতি-নাতনি ফিক করে হেসে দাদাকে জানায়, এটাকে অনলাইন শপিং বলা হয়। ঘরে বসে অর্ডার ও টাকার বিনিময়ে সে সব পণ্য হাতে পাওয়া যায়। আফসার আলী বললেন, ভালোই তো।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, ডিজিটাল প্রযুক্তির কল্যাণে ‘অনলাইন ঈদ শপিং’ ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। মাত্র কয়েক বছর আগেও ঈদ শপিং মানেই ছিল ছোট-বড় বিভিন্ন শপিংমল, বিপণি বিতান ও ফ্যাশন হাউজে ঘুরে ঘুরে ব্যতিক্রমধর্মী পণ্য খুঁজে বের করে কেনার মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল।

কিন্তু সম্প্রতি ডিজিটাল প্রযুক্তির কল্যাণে ঈদ শপিংয়ে নতুনত্বের ছোঁয়া লেগেছে। ক্রেতাকে এখন আর যানজটে আটকে থেকে, মার্কেটে মার্কেটে ঘুরে ক্লান্ত ও গরমে ঘেমে অস্থির হতে হচ্ছে না। আর্থিকভাবে একটু স্বচ্ছল হলেই যে কেউ ঘরে বসেই কম্পিউটারের মাউসে ক্লিক করে শত শত পণ্য থেকে বাছাই করে পছন্দের পণ্যটি কিনতে পারছেন।

শুধু তাই নয়, পণ্যটি সংগ্রহ করতে ক্রেতাকে এখন আর বিক্রেতার কাছে যেতেও হচ্ছে না, ইচ্ছে করলে ঘরে বসেই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পণ্য হাতে পেয়ে যাচ্ছেন ক্রেতারা। যানজট ও সময় উভয় বাঁচাতে হাজার হাজার মানুষ অনলাইন শপিংয়ের দিকে ঝুঁকছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঈদকে সামনে রেখে শপিংমল, বিপণি কেন্দ্র ও ফ্যাশন হাউজের মতো অনলাইন শপিং মার্কেট জমে উঠেছে।

নির্ভরযোগ্য একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে. সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে ছোট বড় প্রায় শতাধিক ফ্যাশন ও বুটিক হাউজ ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন।

পুরুষ, নারী ও শিশু সকলের জন্য আকর্ষণীয় হ্রাসকৃত মূল্যে সালোয়ার কামিজ, থ্রি-পিস, শাড়ি, জুয়েলারি, হাত ব্যাগ, বিছানার চাদর, শার্ট, গেঞ্জি, পাঞ্জাবি, ঘড়ি, জুতা, ক্যামেরা, টেলিফোন, মোবাইল ফোন ক্রয়ের অফার দেয়া হচ্ছে। বিশেষ গ্রাফিক ডিজাইনের মাধ্যমে মডেলদের মাধ্যমে পোশাকের পৃথক রং ও ডিজাইন প্রদর্শন করা হচ্ছে।

অনলাইন শপিং শপ খুলতে লাখ লাখ টাকার অগ্রিম সালামি ও হাজার হাজার টাকার ভাড়া ও আনুষঙ্গিক খরচ মেটাতে হয় না বলে অনেকেই এ ব্যবসার দিকে ঝুঁকছেন। অনেক অনলাইন শপিং শপের মালিক বিশেষ কমিশনে পণ্য বিক্রির জন্য বেকার শিক্ষিত যুবকদের কাজে লাগাচ্ছেন।

জাগো নিউজের এ প্রতিবেদক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনুসন্ধান চালিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সন্ধান পেয়েছেন। বিভিন্ন অনলাইন শপিং শপের মালিক ফেসবুকে নানা কথা যেমন- ঈদের দারুণ অফার নিয়ে এলো, অত্যন্ত সুলভ মূল্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রতিটি ড্রেস পাচ্ছেন, দারুন সব কামিজের সমাহার, অবিশ্বাস্য কম মূল্যে অনলাইনে কিনতে টেলিফোন বা মোবাইলে যোগাযোগের পরামর্শ দিচ্ছেন।

বিজ্ঞাপনে আরো বলা হচ্ছে, ইন্ডিয়ার আদলে সম্পূর্ণ কটন কাপড়ের ওপর এমব্রোডারির কাজ, সানটোন বোতাম, পিউর শিফন দোপাট্টা, সেমি স্টিচ থ্রি পিচ ইত্যাদি তথ্য-উপাত্ত জুড়ে দিচ্ছেন। পণ্য ভেদে বিজ্ঞাপনের ভাষা ভিন্ন ধরনের।

অনলাইনে যে সকল প্রতিষ্ঠান শাড়ি বিক্রি করছেন সেগুলো হলো ফ্যাশন ট্রেন্ডজ, দেশালী.কম, শৈবাল.কম, টাঙ্গাইল শাড়ি, রঙ্গ শাড়ি, বাংলামার্ট ২৪.কম শাড়ি, মহিলাদের বিভিন্ন রং, ডিজাইন ও ফ্যাশনেবল পোশাক বিক্রি করছে তাদের মধ্যে ফ্যাশনইসতা.কম.বিডি, ওয়াইল্ড ফ্যাশন বিডি, কুর্তি হাউজ বিডি, সাত রং বিডি, চৈতি, লাইফস্টাইল শপ.কম.বিডি, স্কাই টাচ ফ্যাশন, আচল বিডি.কম, ফ্যাশন হাউজ ২৪.কম, রি ডিজাইনড ফ্যাশন, বায় আর.কম.বিডি, সেইলর বিডি, আস্থা কালেকশন, আবেরা ফ্যাশন, ফাইভ স্টার ফ্যাশন, ফ্যাশন রিভিল, স্টাইল মোডস.কম, নিশ্চয়ই.কম, আরোহী ফ্যাশন, ফ্যাশন অ্যান্ড লাইফ, রি ডিজাইনড, ফ্যাশিনো ও আওয়ার ডেইলি ফ্যাশন ইত্যাদি।

ছেলেদের পাঞ্জাবি নিয়ে এসেছে টুকরি.কম, নাবিলা বিডি.কম, মাই শপিং বিডি.কম, পিজ্জা২৪.কম, এসো-ঘরে বসে অর্ডার দিন। বিভিন্ন ব্রান্ডের ঘড়ির আদলে রেপ্লিকা ঘড়ি নিয়ে এসেছে ইন টাইম ঢাকা, ব্রানো, টিসট, নকশা, অলিমা সেন্স ও মোরেনমোর.পিকে.বিডি।

আরো রয়েছে ইনস্ট্যান্ট হোম ওয়্যার এর চাদর, দরজা অনলাইন শপিং (ব্যাগ, নাইটড্রেস, শার্ট), চেঞ্জ, ওয়্যারহাট (শার্ট), ব্লুম (নারীদের হ্যান্ড ব্যাগ), জিএমএএমজিআরএল (ডিজাইনার ক্রিয়েশন অ্যান্ড জুয়েলারি), নানা রকম (ফ্যাশন স্পোর্টস), বিডি অনলাইন মার্ট ( জুতা), বায় মি (ব্রান্ড শিশুদের পোশাক), আমার গেজেট.কম (রেডিয়েশন ফ্রি টেলিফোন সেট ), বেপারি.কম (মোবাইল) ও ফানুস.কম (স্মার্ট ইলেকট্রনিকস আইটেম), বেবি কেয়ার বাংলাদেশ ফ্রুট জুস, স্টোর বিডি মজার মজার ইউনিক গিফট ও গেজেট, ক্লাব কার্নিভাল (লেডিস ব্যাগ), বিডি হাট.কম (শিশু পোশাক), আজুবা ফুট ওয়্যার (জুতা), কাইমো.কম.বিডি (ওয়ালেট, ক্রেডিট কার্ড হোল্ডার ও পাসপোর্ট কভারসহ বিভিন্ন সামগ্রী). দি ক্যামেরা হাউজ (১ বছরের গ্যারান্টি ও ৫ বছর বিক্রয়োত্তর সেবা), আইফেরি.কম (জুতা স্যান্ডেল), প্রপারটি বাজার লিমিটেড ( ফ্ল্যাট প্লট বিক্রি) আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ক্রেতাদের কাছে স্ব স্ব পণ্য বিক্রি করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*